Blog

করোনার কবলে ধুকছে শপিং মল, ট্যুরিজম, বিনোদন পার্ক

271 Views0 Comment

দিনটা এমন এসেছে যে মানুষের মুখে মুখে ফিরছে একটাই শব্দ ‘করোনা’। ভাল কথা, মন্দ কথা, ভাল থাকা, মন্দ থাকা সবই আজ এই ‘করোনা’র নিয়ন্ত্রণাধীন। আগামী ২১ দিন ঘরবন্দি থাকবে ভারতবাসী। কেউ জানি না এই অচলাবস্থা থেকে নিস্তার পাব কবে?…
তবে, এটা জানি স্তব্ধ হয়েছে জনজীবন। ঘরে প্রয়োজনীয় জিনিসেও পড়েছে টান। বাজারে গেলেও মিলছে না দরকারের জিনিসটি। হাহাকার চারদিকে। এ কোন কালে এসে ঠেকলাম আমরা! রোগ-ভোগ-অচলাবস্থা-বাণিজ্যিক ক্ষতির বৃত্তে বন্দি হয়েছে মানবজাতি। বিনোদনের কথা তো ভুলেই যান। করোনার হাত থেকে বাঁচতে বন্ধ হয়েছে শপিং মল, বিনোদন পার্ক। ধুকছে ট্যুরিজম কোম্পানিগুলিও। আসন্ন শিডিউল বাতিল করেছে প্রত্যেক ট্যুরিজম কোম্পানি। এতে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে কোম্পানিগুলিকে।
তবে, লকডাউন হওয়ার আগে করোনা পরিবেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে খবরের তাগিদে জাস্ট নিউজ হানা দেয় শপিং মল, বিনোদন পার্ক এবং এক ট্যুরিজম কোম্পানিতে। জেনে নেয় সেখানকার সাবধনতার রকমসকম।

দক্ষিণ কলকাতার এক জনপ্রিয় শপিং মলে গিয়ে জানা যায়, সেখানে আগতদের শরীরের তাপমাত্রা মেপে এবং তাঁদের হাত স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করিয়ে তারপর প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে মলে। মলে যত স্টোর আছে সেগুলির কর্মচারীদের জন্যও একই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল লক ডাউনের আগের মুহূর্ত অবধি। শরীরে ৯৮ ডিগ্রির উপর তাপমাত্রা থাকলে তাঁকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি মলে। এমনকী যেসব জায়গায় মানুষের হাত পড়ে সেই জায়গাগুলিকেও পরিষ্কার রাখা হত মলের তৎপরতায়।

বিনোদন পার্কেও একইরকমের সাবধানতার আভাস পেয়েছে জাস্ট নিউজ। সেখানেও আগতদের শরীরের তাপমাত্রা মেপে তারপর প্রবেশ করতে দেওয়া হয়েছে। তবে, আজ আর কোনওকিছুরই হচ্ছে না প্রয়োজন। কারণ সব জায়গাতেই ঝুলছে তালা। এই সময়েই বাচ্চাদের আগমন বেশি ঘটে বিনোদন পার্কে। কারণ অধিকাংশের পরীক্ষা হয়ে গিয়ে ছুটি চলছে স্কুলে। এরপর বাজবে গরমের ছুটির ঘণ্টা। কিন্তু করোনার প্রকোপে দেখা মিলবে না কারোরই। কে ঝুঁকি নেবে এই পরিস্থিতিতে? ফলে ব্যাপক ক্ষতির কবলে বিনোদন পার্কের বাণিজ্য।

চোখ ফেরালে চলবে না ট্যুরিজম কোম্পানির উপর থেকেও। গরমের ছুটির ফাঁদে অনেকেই পাড়ি জমায় অন্য শহরে, কেউ বা অন্য দেশে। অনেকে সেই চুক্তিতে আবদ্ধও হয়ে গিয়েছিলেন কোনও না কোনও ট্যুরিজম কোম্পানির সঙ্গে। সব আশায় জল ঢেলেছে ‘করোনা ভাইরাস’। বাতিল হয়েছে সব ট্যুর প্ল্যান। কারণ শহর ছেড়ে কোথাও যাওয়ার অনুমতি এই মুহূর্তে মিলবে না। এর ফলে কোনও ট্যুরিজম কোম্পানি কতখানি বাণিজ্যিক ক্ষতির মুখ দেখল তা বলাই বাহুল্য।

সাবধানতাঃ ঘরে থাকুন, হাত স্যানিটাইজার দিয়ে ধুয়ে নিন, হাত সাবান আর জলে ধুয়ে নিন বারবার, মুখের ভিতরে, নাকে, চোখে হাত দেবেন না।

– নবনীতা দত্তগুপ্ত